বিনোদন

‘শেখ ফরিদ বর বরপক্ষ ‘

রায়না গ্রামের একটা স্কুলে পড়ায়। সম্প্রতি তার বাবা তার বিয়ে ঠিক করেছে দুবাই প্রবাসী একজন ছেলের সাথে। বিয়েটা হবে স্কাইপের মাধ্যমে। রায়নার ও এই বিয়েতে অমত নেই,তার পরিবারের ইচ্ছেই তার ইচ্ছে।এখনও পর্যন্ত রায়না পাত্রকে দেখে নি,তার ছবি পর্যন্ত না, দু একবার ফোনে কথা হয়েছে,এই পর্যন্তই, রায়না বিয়ের দিনও ঘনিয়ে আসছে,এইতো কিছুদিন আগেই তাকে আংটি পরিয়ে যাওয়ার সময় তার শশুর শাশুরী সহ তার হবু বরের ফ্যামিলি কে ভালই মনে হয়। বিয়ের চার দিন আগে বাড়ি জুড়ে যখন চলছে উৎসবের প্রস্ততি নিচ্ছে হঠাৎ করে বাড়িতে একজন অচেনা অতিথির আগমন ঘটে। আগন্তুকের নাম শেখ ফরিদ হোসেন। শেখ ফরিদ হচ্ছেন বরপক্ষের লোক।

সে বরের মামাতো ভাই। রায়নাদের থানায় চাকুরি করেন। অফিসে ছুটি পাওয়ায় আর যেহুতু রায়না দের বাড়ি কাছে তাই আগে ভাগেই চলে এসেছেন। বিষয়টা অদ্ভুত হলেও বরপক্ষের লোক বলে তাকে কিছু বলা যাচ্ছে না, আমাদের দেশে কন্যার বিয়ের পূর্বে কখনই বরপক্ষের লোকেরা কন্যার বাড়িতে থাকেন না,আর উচিৎ ও না,কিন্তু হবু আত্বীয়কেতো আর ফেলে দিতে পারে না,পাছে কন্যার অমঙ্গল হয়! তাই ফরিদ সাহেবের যত্নের কমতি হচ্ছে না। কিন্তু ফরিদ সাহেবের আগমনের পরই নতুন একটা উৎপাত শুরু হয়ে যায়। একেতো বিয়ের পূর্বে হাজির তার উপর তার অদ্ভুত অদ্ভুত কাজের জন্য মানুষ পিছনে হাসাহাসি হাসা হাসি করে।সবাই তাকে এক নামে চেনে বরপক্ষ ফরিদ হোসেন। এদিকে ফরিদ হোসেন টুকটাক ইতির সাথে ভাব জমানর চেষ্টা কর ।ফরিদ হোসেনকে ইতিরও ভাল লাগে,সে অনেক মজার লোক। রায়না কে দেখে ফরিদের ও ভাল লেগে যায়।  হঠাৎ করে ফরিদ রায়নাকে বোঝাতে শুরু করে যে যাকে চেনে না,জানেন না এমন কি বিয়ের পড়ে ইতি কে ফেলে বিদেশে পড়ে থাকবে। তার সাথে কি করে সংসার করবে? ইতি ইতিস্তত করে কারন ফরিদ তো ভুল বলেনি।

এদিকে ফরিদ ইতিকে তার সাথে পালিয়ে যাবার প্রস্তাব দেয়। ইতি এই কথা শুনে অবাক হয়। ইতি না করে দেয় । কিন্তু ফরিদ নাছোরবান্দা,সে তাকে কে নিয়ে যাবেই। কিন্তু তাতেও কোন লাভ হয় না।  ইতি জানিয়ে দেয় তার বাবা মায়ের পছন্দ করা এ্ই প্রবাসী ছেলেকেই বিয়ে করবে, তার কারন তার কাছে তার বাবা স্থান সবার উপর। তার বাবা কে সে কষ্ঠ দিবে না। শেখ ফরিদ তখন রাগ করে চলে যায়। এরপর ঘটনার মোড় নেয় অন্যদিকে। এমনই কমেডি গল্পে নির্মিত হয়েছে নাটক ‘শেখ ফরিদ বর বরপক্ষ ‘।

সোলায়মান জুয়েলের রচনা ও পরিচালনায় নাটকটিতে ফরিদ চরিত্রে অভিনয় করেছে জোভান এবং ইতি চরিত্রে অর্ষা। নাটকটিতে আরো অভিনয় করেছে নাইরুজ শিফাত, শাকিল রাজ ও সন্জিব।

নির্মাতা জানান, আগামী ১লা জুন নাটকটি সিনেফায়ার রেকর্ডস ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পাবে।

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন