বিনোদন

আমদানি করা ছবিতে দর্শক টানছে না !

বাংলা ছবির দর্শক এখনও কমেনি। ভালো ছবি প্রেক্ষাগৃহে আসলে এখনও দর্শক সিনেমা হলে ভিড় জমায়। তবে কলকাতা থেকে আমদানি করা বাংলা ছবির প্রতি এদেশের দর্শক খানিকটা উদাসীন। বলতে গেলে ঘরে বসে টিভি পর্দায় ভারতের বাংলা ছবি দেখলেও আমদানি করা বাংলা ছবিগুলো প্রেক্ষাগৃহে দর্শক টানছে না। আগে বিভিন্ন সময়ে রপ্তানির বিপরীতে ভারতীয় হিন্দি, বাংলা ছবি এদেশে আমদানি করা হতো। তবে মাঝে এটি অনিয়মিত হলেও ২০১০ সালের পর নিয়মিতভাবেই ভারতীয় বাংলা ছবি আমদানি করে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়া হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এসবের মধ্যে দু-একটি ছাড়া বেশিরভাগ ছবিই ফ্লপের তালিকায় রয়েছে। বেশ কয়েকটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের হিসাব মতে, গত সাত বছরে এই নীতিমালায় ভারত থেকে আমদানি করা ২টি হিন্দিসহ প্রায় ২০ থেকে ২৫টি বাংলা ছবি মুক্তি পেয়েছে এখানে। ইন উইন এন্টারপ্রাইজ থেকে হিন্দি ছবি ‘ওয়ান্টেড’, ‘ডন-২’ সহ বাংলা ছবি ‘জোর’, ‘বদলা’, ‘সংগ্রাম’, খান ব্রাদাসের ‘খোকা বাবু’, ‘খোকা ৪২০’, ‘বেপরোয়া’, ‘যুদ্ধশিশু’, ‘অভিমান’, আরাধনা এন্টারপ্রাইজের ‘হরিপদ ব্যান্ডওয়ালা’, ‘ওয়ান’, ‘কেলোর কীর্তি’ ‘তোমাকে চাই’, ‘বিসর্জন’,‘পিয়া রে’ ও পোস্ত ইত্যাদি।

এদিকে সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে কলকাতার সিনেমা ‘ভোকাট্টা’। বাংলাদেশে সাফটা চুক্তির মধ্য দিয়ে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। তবে দর্শকহীনতায় রয়েছে সিনেমাটি। হলে টানানো সিনেমার বড় পোস্টার, কিন্তু কোনো ভিড় নেই টিকেট কাউন্টারে।

এই সিনেমায় জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন ওম ও এলিনা। উড়িষ্যার পরিচালক রমেশ রাট পরিচালনা করেছেন সিনেমাটি। হাসির ছবি ‘ভোকাট্টা’র গল্প ও চিত্রনাট্য করেছেন পেলে ভট্টাচার্য্য। সারাদেশে প্রায় অর্ধশতাধিক সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ‘ভোকাট্টা’।

প্রযোজক ইফতেখারউদ্দিন নওশাদ বলেন, আমদানি করা ছবি যদি একই সাথে দুই বাংলায় মুক্তি পেত সে ক্ষেত্রে ছবিগুলো বেশি ব্যবসা করতো। এখন যেহেতু সেই খানের দুই সপ্তাহ পরে এদেশে মুক্তি পায় সেক্ষেত্রে হলে দর্শক কম হবে সেটিই স্বাভাবিক। কারণ ছবির গুলো মুক্তির পর দর্শকরা ঘরে বসে সোস্যাল মিডিয়ার আর ইউটিউবেই দেখে ফেলেন।

চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, আমদানি সিনেমা বাংলাদেশে কখনই খুব বেশি ভালো যায়নি। বাংলাদেশের হলমুখী মানুষ কলকাতার সিনেমা দেখেন না। আর দেখলেও সেটা মোবাইল, টিভিতে দেখেন। হলে বাংলাদেশের সিনেমাই চলে। অন্যরা সবসময়ই ব্যর্থ হয়েছে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন