বিনোদন

‘আগুনের দিন শেষ হবে একদিন‘

আর কয়দিন পরেই আসছে ঈদ উল আযহা। ঈদ উৎসবের আমেজকে আরেকটু মাতিয়ে রাখতে প্রতিবারের মত এবারও নাট্য নির্মাতারা তাদের বৈচিত্রময় বাংলা নাটক ও টেলিফিল্ম নিয়ে হাজির হবেন বিভিন্ন টিভি পর্দায়। বাঙালী টেলিভিশন দর্শকদের কাছে বাংলা নাটক ও টেলিফিল্ম ছাড়া যেন ঈদ ঠিক জমে উঠে না।

এই ঈদে সবচেয়ে আলোচিত হওয়ার বেশ সম্ভাবনা আছে  সহিদ উন নবীর ‘আগুনের দিন শেষ হবে একদিন ‘ নাটকটি। ট্রেলার দেখে অনেকে প্রসংশা করছে। কিছু দিন হয় তার ফেসবুকে ট্রেলারটি শেয়ার করেছেন। সেখানে কেউ লিখছেন এটা দেখার অপেক্ষায় রইলাম শুভকামনা ভাইয়া। এভাবে অনেকে তার নাটকটি নিয়ে উচ্ছাস প্রকাশ করছেন। নাটকটির ট্রেলার দেখে সবাই এতো আগ্রহ প্রকাশ করছে কেন? বিষয়টি জানতে কথা হয় নাটকটির পরিচালকের সংঙ্গে আসলে গল্পটি কেমন?

তিনি জানালেন,পুরান ঢাকার একটি গল্প। একটি অসহায় এতিম ছেলে ইউসুফ । সে একটি আতরের দোকানে চাকরি করে। আশপাশের দোকানের কর্মচারিদের সাথে তার ভালো সর্ম্পক। এমনই এক পাশের দোকানের কর্মচারির দূর সর্ম্পকের এক আত্বীয়ের মেয়ে তাদের দোকানে আশে। তাকে দেখে ইউসুফের ভালো লেগে যায় তারপর সে বিয়ে করে। এরপর ছোটখাটো একটা সংসার হয়ে গেলো তাদের । ভালোই কেটে যাচ্ছিলো  তাদের সংসার । এরপর ঐমেয়েটি অন্তঃসত্বা হয়, অন্তঃসত্বা হওয়ার কিছু দিন পর তাদের এলাকায় আগুন ধরে। এরপর কি ঘটে সেটা দর্শকদের চমক হিসাবে রাখলাম।

নাটকটি রচনা করেছেন সহিদ উন নবী ও শিশির শিক্ত। নাটকটিতে এতিম ছেলে চরিত্রে অভিনয় করেছেন জোভান এবং তার বৌয়ের চরিত্রে ছিলেন ফারিন।

নবী বলেন, তাদের নিয়ে আমি প্রথমবার একসাথে স্ক্রীণে , তারা দুর্দান্ত করেছে। তাদের সেরাটা দিয়ে কাজ করেছেন। আমি যতটা চেয়েছি , সেটা তার চেয়েও বেশি পেয়েছি। সবার সাপোর্টও ছিল বলে কাজটি সুন্দরভাবে শেষ করতে পেরেছি।

জোভান বলেন, এই ঈদে আমি চেষ্টা করেছি বেশ কিছু ভিন্নধর্মী গল্পে কাজ করার। ‘আগুনের দিন শেষ হবে একদিন ‘এরকমই একটি গল্প। কাজটি করতে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। অনেক রিস্কের মধ্যে কাজটি শেষ করেছি আমরা। তবে একটি রিস্কি শর্ট বলি সেটা হলো- গল্পের র বেড় করতে  কাঠ আর কিরোসিন দিয়ে আগুন ধরিয়ে তারপর শর্ট দেওয়া হয়। এভাবে অনেক পরিশ্রম করে এই কাজটি করা হয়েছে। এটা আমার জন্য একটি চ্যালেঞ্জিং কাজ ছিলো। ‘আগুনের দিন শেষ হবে একদিন ‘ দর্শকের প্রিয় একটি নাটক হবে বলেই আমি আশা করি।

মিডিয়া ইমপ্রেশনের ব্যানারে নাটকটি পরিবেশনা করছে দৃক। নির্মাতা জানান, আসছে ঈদে নাটকটি ঈদের ২য় দিন সন্ধ্যা ৭ টায়  চ্যানেল-৯ প্রচারিত হবে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন