বিনোদন

তারকাদের নিয়ে এডিস মশা নিধন অভিযানে তথ্যমন্ত্রী

শুক্রবার সকালে রাজধানীর পান্থপথে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনে (বিএফডিসি) চলচ্চিত্র শিল্পী-কলাকুশলী, প্রযোজক, পরিচালকবৃন্দকে সঙ্গে নিয়ে পরিচ্ছন্নতা ও মশামুক্তি অভিযান উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি তখন বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধের জন্য এডিস মশা দমনে সকলের সম্মিলিত উদ্যোগ, পরিচ্ছন্নতা ও গুজব পরিহারের বিকল্প নেই।

চিকিৎসা সেবাদানকারীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমি চিকিৎসক ও চিকিৎসা সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই তারা সরকারের আহ্বানে সাড়া দিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছেন। গুটিকয়েক প্রতিষ্ঠান যারা এ দুর্যোগকে ব্যবসার হাতিয়ার হিসেবে অপব্যবহার করছে, তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

হাছান মাহমুদ আরও বলেন, চিকিৎসক নেতাদের অবশ্যই পদক্ষেপ নিতে হবে, যাতে কেউ ডেঙ্গুকে মহামারি হিসেবে ব্যবহার করে ব্যবসা করতে না পারে। স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ ইতোমধ্যেই জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং তাদের সদস্যদের নির্দেশনা দিয়েছে, প্রয়োজনে তারা বিনা ফি’তে ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসা দেবে। এডিস মশার কারণে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে বহু লোক হাসপাতালে ভর্তি হয়ে অথবা তাদের বাসায় চিকিৎসা গ্রহণ করছে।

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকার ইতিমধ্যেই পদক্ষেপ নিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রত্যেককেই নিজ নিজ বসতবাড়ির চত্বর এবং আশপাশ এলাকা পরিচ্ছন্ন করতে হবে। পাশাপাশি মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস করতে হবে যাতে ভয়ঙ্কর এডিস মশার বিস্তার না ঘটে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যেই সকলে মিলে ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলায় কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিয়েছেন। এ কারণে সরকারের পাশাপাশি আওয়ামী লীগও ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলায় কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

এ সময় তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে চলচ্চিত্র শিল্পীদের অংশগ্রহণে আজকের এই পরিচ্ছন্নতা ও মশক নিধন অভিযান দেশবাসীকে উদ্বুদ্ধকরণে সহায়ক হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছেন এডিস মশা আর থাকবে না। আমি মনে করি আমরা যদি একত্রে ডেঙ্গুর মোকাবেলায় কাজ করি তাহলে ডেঙ্গুর প্রকোপ রোধে সক্ষম হবো।

অভিযানের সময় তথ্যসচিব আবদুল মালেক, বিএফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল করিম, অতিরিক্ত সচিব মো. মিজান উল আলম, চলচ্চিত্র তারকা ইলিয়াস কাঞ্চন, রোজিনা, দিলারা, অঞ্জনা, আন্না, রিয়াজ, ফেরদৌস, রোকেয়া প্রাচী, শাহনূর, জায়েদ খান, জয় চৌধুরী, শিপন, আঁচল, তানহা, প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, আবু মুসা দেবু, পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার, বদিউল আলম খোকন, সাংস্কৃতিক সংগঠক অরুণ সরকার রানাসহ চলচ্চিত্র ও সংস্কৃতি অঙ্গনের বিপুল প্রতিনিধি এ অভিযানে অংশ নেন।

অভিযানের একপর্যায়ে এফডিসির সামনের রাস্তা পরিচ্ছন্নতায় মন্ত্রী নিজেই প্রথমে ঝাড়ু ও পরে মশা মারার ওষুধ স্প্রে করার ফগার মেশিনও হাতে তুলে নিলে অভিযানের তারকা ও কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রাণসঞ্চার হয়।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন